পীরগঞ্জে আদিবাসীর জমি লিখে নেয়ার চেষ্টা থানায় মামলা প্রতারক মিঠু গ্রেফতার

  •   
  •   
আশিকুর রহমান সরকার, পীরগঞ্জ করেসপন্ডেন্ট । বাংলালাইভ২৪.কম

রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলা সাব রেজিষ্ট্রি অফিসে প্রতারনার মাধ্যমে ৩ আদিবাসীর ১২ একর জমি লিখে নেয়ার চেষ্টা ব্যর্থ । এ ব্যাপারে দায়েরকৃত মামলায় ঘটনার মূল হোতা জহুরুল ইসলাম মিঠু নামের এক সাবেক সেনা সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুৃলিশ ।

গ্রেফতারকৃত মিঠু চতরা ইউনিয়নের সন্দলপুর(নীলদরিয়া) গ্রামের হোমিও চিকিৎসা বাদশা (বাচ্চা) মিয়ার ছেলে পুলিশ জানায়,প্রতারিত চতরা টিকরা পাড়ার মৃত মঙ্গল হাসদার ছেলে দেওয়ান হাসদা বাদী হয়ে এ ব্যাপারে পীরগঞ্জ থানায় গত শুক্রবার মামলা দায়ের করেছে।

মামলার আরজীতে বাদী উল্লেখ করেন-তিনি নিজে ও তার ভাই বুদরাই হাসদা, সরদার হাসদার পৈতৃক সুত্রে প্রাপ্ত চতরা মৌজার ৯৭ খতিয়ানে পৃথক ৭ দাগে ৪ একর ৪৩ শতক,এবং ৯৯ খতিয়ানে পৃথক ৬ দাগে ৭ একর ৬৩ শতকসহ মোট ১২ একর ৬ শতক জমির মধ্য হতে পৃথক ৪ দাগে ৩ একর ৭৯ শতাংশ বেদখলকৃত জমি উদ্ধারের জন্য অভিযুক্ত মোঃ জহুরুল ইসলাম মিঠুকে আমমোক্তারনামা নিয়োগ করি। পীরগঞ্জ গ্রামের দলিল লেখক জগবন্ধু মহন্তের ছেলে শ্রী অধির চন্দ্রের সাথে যোগসাজোসে মিঠু ১২ বিঘার স্থলে কৌশলে ১২ একর জমি আমমোক্তার দলিল করে নেয়ার উদ্দেশ্যে যাবতীয় কাগজপত্র প্রস্তুত করে ।

গত ৬ নভেম্বর বিকেল সাড়ে ৪ টায় পীরগঞ্জ সাব রেজিষ্ট্রি অফিসে দলিল সম্পাদনের পুর্ব মুহুর্তে সাব রেজিষ্ট্রারকে আমমোক্তার দলিলটি পড়ে শোনানোর অনুরোধ করলে সাব রেজিষ্ট্রার সামসুজ্জামান সরদার নিয়ম অনুযায়ী দলিলটি পড়ে শোনানোর পরিবর্তে অতি উৎসাহী হয়ে উল্টো আদিবাসী ৩ ভাইয়ের উপর চড়াও হন । অবস্থা বেগতিক দেখে বাদি নিকটতম (পীরগঞ্জ) থানায় আশ্রয় নেয়। এলাকাবাসী জানায়,বিষয়টি নিয়ে আদিবাসীদের মাঝে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

পীরগঞ্জ থানার ওসি সরেস চন্দ্র বলেন-তিন ভাই আদিবাসী ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীভুক্ত অশিক্ষিত হেতু অভিযুক্তরা এ সুযোগ গ্রহন করেছিল।দায়েরকৃত মামলার তদন্ত চলছে। উক্ত মামলার অভিযুক্ত প্রধা আসামী কে গত শুক্রবার রাতে গ্রেফতার করা হয়েছে। ঘটনার সাথে জড়িত অন্যানদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যহত রয়েছে বলে জানান পীরগঞ্জ থানার ওসি সরেস চন্দ্র।

Share via
Copy link
Powered by Social Snap