প্লাটুনে মাশরাফী তামিম আফ্রিদি পেরেরা

  •   
  •   
স্পোর্টস ডেস্ক । বাংলালাইভ২৪.কম

আনুষ্ঠানিকভাবে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) বিশেষ আয়োজন ‘বঙ্গবন্ধু প্রিমিয়ার লিগের’ কার্যক্রম শুরু হয়ে গেল। গতকাল ঢাকার র‌্যাডিসন ব্লু ওয়াটার গার্ডেন হোটেলের বলরুমে বিপিএল ক্রিকেটার ড্রাফট হয়েছে।

তাতে সবচেয়ে বড় চমক ছিল মাশরাফী বিন মোর্ত্তজার ডাক। এ প্লাস গ্রেডে থাকা জাতীয় দলের ওয়ানডে অধিনায়ককে প্রথম রাউন্ডেই কোনো একটি দলে দেখতে চেয়েছিল সবাই। কিন্তু আশ্চর্যজনকভাবে দেশি ক্রিকেটারদের চতুর্থ রাউন্ডে এসে দল পান মাশরাফী। এছাড়া বাকি ক্রিকেটারদের দল পাওয়া স্বাভাবিকভাবেই হয়েছে।

গত আসরের বিপিএল খেলারাই দল পেয়েছেন। এছাড়া বিদেশি ক্রিকেটারদের মধ্যেও নতুন কেউ নেই। বিপিএল খেলার অভিজ্ঞতা সম্পন্নরাই দল পেয়েছেন।

সন্ধ্যা ৬টায় শুরুর হওয়ার কথা থাকলেও ৪০ মিনিট দেরিতে শুরু হয় ড্রাফট অনুষ্ঠান। ড্রাফটে সবার প্রথমে দল পান মুশফিকুর রহিম। এ প্লাস গ্রেডে থাকা এই ব্যাটসম্যানকে ডেকে নেয় খুলনা। ড্রাফটের প্রথম রাউন্ডে দ্বিতীয় ডাকের সুযোগ পেয়ে ঢাকা তামিম ইকবালকে তুলে নেয়। তৃতীয় ডাকে রাজশাহী এ প্লাস গ্রেডের কাউকে নেয়নি। সরাসরি এ গ্রেডের লিটন দাশকে নেয় তারা। চতুর্থ ডাকে মাহমুদউল্লাহকে দলে নিয়েছে চট্টগ্রাম। আর মোস্তাফিজুর রহমানকে ডেকে নেয় রংপুর। ষষ্ঠ ডাকে কুমিল্লা নিয়েছে সৌম্য সরকার। আর শেষ ডাকে সিলেট দলে নেয় মোসাদ্দেক হোসেনকে। প্রথম রাউন্ডের ডাকে এ প্লাসের সবাই দল পেলেও বাদ পড়েন মাশরাফী। পরে ঢাকা তাকে দলে নেওয়ায় এই দলে দুজন এ প্লাস গ্রেডের ক্রিকেটার থাকলেন।

সরাসরি ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) অধীনে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া সপ্তম বিপিএলে বেশ কিছু নিয়মে এসেছে পরিবর্তন। দল ৭টিই থাকছে, দলগুলো যমুনা ব্যাংক ঢাকা প্লাটুন, সিলেট থান্ডার, রাজশাহী রয়্যালস, চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স, প্রিমিয়ার ব্যাংক খুলনা টাইগার্স, রংপুর রেঞ্জার্স, কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স। সব দলের কোচ এখনো নিশ্চিত হননি। গতকাল ড্রাফট অনুষ্ঠানে রংপুরে কোচ হিসেবে

পাকিস্তানের সাবেক ব্যাটিং কোচ গ্রান্ট ফ্লাওয়ার ও কুমিল্লার কোচ হিসেবে সাবেক দক্ষিণ আফ্রিকান কোচ ওটিস গিবসনকে দেখা গেছে।

ড্রাফটে ছয় ক্যাটাগরিতে রাখা হয়েছে দেশি ক্রিকেটারদের। ছয় ক্যাটাগরি হলো– এ প্লাস, ‘এ’ ‘বি’ ‘সি’ ‘ডি’ ও ‘ই’ গ্রেড। এ প্লাস ক্যাটাগরি চার ক্রিকেটার তামিম ইকবাল, মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা, মুশফিকুর রহিম ও মাহমুদউল্লাহ’র ভিত্তিমূল্য রাখা হয়েছে ৫০ লাখ টাকা। এ গ্রেড-এ থাকা ৯ ক্রিকেটার পাবেন ২৫ লাখ করে। এছাড়া বি গ্রেড ক্রিকেটাররা পাবেন ১৮ লাখ, সি গ্রেড ১২ লাখ, ডি গ্রেড ৮ লাখ ও ই গ্রেড ক্রিকেটাররা ৫ লাখ টাকা পারিশ্রমিক পাবেন। এদিকে বিদেশি ক্রিকেটারদের জন্য ৫ ক্যাটাগরিতে ৪০০’র ওপর ক্রিকেটারের নাম এসেছে ড্রাফটে।

আগামী ৮ ডিসেম্বর বর্ণাঢ্য উদ্বোধন হবে এবারের আসরের। আর ১১ তারিখ মাঠে গড়াবে ক্রিকেট।

Share via
Copy link
Powered by Social Snap