মির্জাগঞ্জে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে স্কুল ছাত্রীর আত্মহত্যা

  •   
  •   
কামরুজ্জামান বাঁধন, মির্জাগঞ্জ(পটুয়াখালী) করেসপন্ডেন্ট । বাংলালাইভ২৪.কম

পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জে নিজ ঘরের আড়ার সাথে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে দোঁলন চাঁপা (১৫) নামের এক স্কুল ছাত্রী আত্মহত্যা করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার সকাল সাড়ে নয়টায় উপজেলার মির্জাগঞ্জ ইউনিয়নের উত্তর মির্জাগঞ্জ গ্রামে।

নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়,গতকাল শুক্রবার সকালে বাড়ির লোকজনের অগোচরে ঘরের দোতলায় আড়ার সঙ্গে নিজের ব্যবহৃত ওড়না গলায় পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে। দীর্ঘক্ষন কোন সাড়া শব্দ না পেয়ে স্বজনরা খোঁজাখুঁজি শুরু করে এবং এক পর্যায়ে ঘরের দোতলায় তাকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পেয়ে ডাক-চিৎকার দিলে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে মির্জাগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাঃ আবদুর রহমান শামীম তাকে মৃত ঘোষনা করেন।

নিহতের নানা মোঃ সাত্তার হাওলাদার জানান, দোঁলন চাঁপার জন্মের পর পিতা মোঃ দুলাল দফাদার স্ত্রী ও সন্তানকে রেখে আরেকটি বিয়ে করে ঢাকায় বসবাস শুরু করেন।পরবর্তীতে মা ফাতিমা বেগমও তিনমাস বয়সে একমাত্র সন্তান দোঁলন চাঁপাকে উত্তর মির্জাগঞ্জ গ্রামের নানার বাড়িতে রেখে জীবিকার টানে ঢাকায় গিয়ে একটি গার্মেন্টেসে চাকুরী নেন এবং প্রতি মাসে সন্তানের ভরনপোষনের খরচ পিতার নিকট পাঠিয়ে দেন।

দোঁলন চাঁপা মির্জাগঞ্জ ইউনিয়নের মনোহরখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে সপ্তম শ্রেণীর শিক্ষার্থী ছিল। মির্জাগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এম.আর শওকত আনোয়ার ইসলাম বলেন,পিতার অবহেলা ও মায়ের অনুপস্থিতিতে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে এমন ঘটনা ঘটাতে পারে। লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পটুয়াখালী মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

Share via
Copy link
Powered by Social Snap