ঢাকামঙ্গলবার, ১৯শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

‘সীমান্তে কাটাতারের বেড়ার ফাঁকে স্বজন দেখা’

বাংলালাইভ ডেস্ক
ডিসেম্বর ১৩, ২০১৯ ৬:৫৬ অপরাহ্ণ
Link Copied!

সফিকুল ইসলাম শিল্পী, রাণীশংকৈল করসেপন্ডেন্ট । বাংলালাইভ২৪.কম

ভারতের শিলিগুড়ি থেকে আসা মেসো শ্বশুড় সত্য বর্ম্মন ও তার ছেলে মতিন বর্ম্মন কে দেখতে কাটা তারের বেড়ার ফাঁকে চোঁখ রাখতে রাণীশংকৈলের সুন্দরী মোড়ের রাজা দিঘির রবিন্দ্র রায় স্ত্রীকে নিয়ে সকাল থেকেই কাটা তারে হাত রেখে অপেক্ষা করছে।

হঠাৎ চিৎকারে বুঝতে বাকী নেই ভারত থেকে আসা স্বজনের সাক্ষাত হয়েছে। প্রতি বছরের পাথরকালী পুজা উপলক্ষে এ মিলন মেলা রাণীশংকৈলের আংশিক, হরিপুর ও কিছু অংশ পীরগঞ্জ উপজেলা মিলে অনুষ্ঠিত হয়। ১৩ ডিসেম্বর শুক্রবার সকাল থেকে ভারতের নারগাঁও ও মাকার হাট সীমান্তে এ মেলা বসে।

বাংলাদেশের স্বজনদের চোঁখের দেখা দেখতে ৩৪৫ ও ৩৪৬ নাম্বার পিলারের আসে পাশে ছুটে আসেন অনেকেই। কাটা তারে হাত রেখে চলে ইশারা । অনেক কথা বলার থাকলেও হয়না বলা । ভীরে প্রচন্ড গুন গুন শব্দ। এ ভাবেই প্রতি বছর এ সীমান্তে পাথরকালী মেলা বসে। প্রসঙ্গতঃ দেশ ভাগের পর আত্মীয় স্বজনরা দু’দেশে ভাগ হয়ে পড়ে। সারা বছর কেউ কারও সঙ্গে দেখা করতে পারেন না। অপেক্ষায় থাকেন ‘পাথর কালি মেলা’র জন্য।

এদিন প্রিয়জনকে একনজর দেখার জন্য শত শত মানুষ ছুটে আসে হরিপুর, কান্দাইল সীমান্তে। দু’দেশের বিজিবি-বিএসএফ’র সহায়তায় কাঁটাতারের বেড়া এলাকায় আগত লোকজন যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হয়। শুরু হয় মিলন মেলা, এক নজর স্বজন দেখার জন্য প্রতিক্ষা!