1. banglalivedesk@gmail.com : banglalive :
  2. emonbanglatv@gmail.com : Dewan Emon : Dewan Emon
বিজেপি সাংসদ রূপা ‘অনুপ্রবেশকারী’, নাগরিকত্ব নিয়ে নতুন তত্ত্ব!
বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০১:১৫ অপরাহ্ন

বিজেপি সাংসদ রূপা ‘অনুপ্রবেশকারী’, নাগরিকত্ব নিয়ে নতুন তত্ত্ব!

বাংলালাইভ২৪.কম
  • আপডেট সময় শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৯
আন্তর্জাতিক ডেস্ক । বাংলালাইভ২৪.কম

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যসভার বিজেপি সাংসদ ও অভিনেত্রী রূপা গাঙ্গুলির একটি টুইটকে ঘিরে তোলপাড় ‍শুরু হয়েছে। তিনি দাবি করেছেন চার দশক আগে সীমান্ত পেরিয়ে ভারতে ঢুকেছেন।

কেউ কেউ প্রশ্ন তুলেছে, তা হলে তাকে কি এখন নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (সিএএ)-এর আওতায় শরণার্থী থেকে নাগরিক হওয়ার জন্য আবেদন করতে হবে? যদি করতে হয়, তা হলে এখন তার অবস্থান কী? তিনি কি জনপ্রতিনিধি হয়ে সংসদ বা বিধানসভায় থাকতে পারেন?

নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল (সিএবি) রাজ্যসভায় পাশ হওয়ার পর দিন বৃহস্পতিবার রূপা টুইট করেছেন, ‘‘আমি তো খান টাইগারের বেগম হয়ে যাচ্ছিলাম। আমাকে অপহরণ করতে এসেছিল। সে রাতে যদি আমি এবং আমার মা বোরকা পরে দিনাজপুর থেকে পালাতে না পারতাম।’’

এ নিয়ে রাজ্যের মন্ত্রী ও তৃণমূল নেতা ফিরহাদ হাকিম বলেন, ‘‘রূপা গাঙ্গুলি তো নিজেই বলছেন, উনি বোরকা পরে এসেছেন। উনি তো নিজের পরিচয় প্রকাশ করেননি! সে ক্ষেত্রে তো উনি নাগরিক নন, একজন অনুপ্রবেশকারী! তা হলে বিজেপি তাকে সাংসদ করল কী করে? এখনই তার পদত্যাগ করা উচিত।’’

এর উত্তরে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘‘রূপা শরণার্থী হয়ে থাকলে কালই নাগরিকত্বের আবেদন করবেন এবং পেয়েও যাবেন। আর শরণার্থী অবস্থায় পশ্চিমবঙ্গ, আসাম— অনেক রাজ্য থেকেই অনেকে সাংসদ হয়েছেন।’’

স্থানীয় আনন্দবাজার পত্রিকার এক প্রতিবেদনে বলা হয়, দিলীপের এই বক্তব্য থেকে উঠে এসেছে এক ঝাঁক প্রশ্ন। এক, ‘অ-নাগরিক’ সাংসদদের নিয়ে গঠিত সরকার কি বৈধ? দুই, রূপার মতো যত মানুষ ‘নির্যাতনের শিকার হয়ে’ বাংলাদেশ থেকে ভারতে এসেছেন, তাদের প্রায় সকলেই ইতিমধ্যেভোটার কার্ড, আধার কার্ড, প্যান কার্ড, গাড়ি চালানোর লাইসেন্স, পাসপোর্টসহ নাগরিকত্বের নানা বৈধ নথি পেয়েছেন।

অনেকের নিজস্ব সম্পত্তিও আছে। তাদের অনেকেই এ দেশে স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে চাকরি বা ব্যবসা করছেন। সে ক্ষেত্রে আইনি পথে ‘নাগরিকত্ব’ পাওয়ার আগেকার ওই সব নথি কি গ্রাহ্য? যদি গ্রাহ্য না হয়, তা হলে তারা কি শরণার্থী হিসাবেই নাগরিকত্বের অধিকার ভোগ করছেন? এটা কি স্ববিরোধিতা নয়?

এখানেই নাকি বিজেপি নেতারা নয়া তত্ত্ব নিয়ে মাঠে নামছেন— ভোটার কার্ড, আধার কার্ড, প্যান কার্ড, গাড়ি চালানোর লাইসেন্স, পাসপোর্টসহ যে ১৪টি নথি এখন ভোট দেওয়ার ক্ষেত্রে গ্রাহ্য হয়, তার একটাও নাগরিকত্বের প্রমাণ নয়। স্বাধীনতার পর একের পর এক ভোট দিয়ে যারা সরকার গড়েছেন, তারাও নাগরিক নন। সিএএ-র আওতায় সকলকেই নাগরিকত্বের জন্য আবেদন করতে হবে।

এ জাতীয় আরো খবর

সতর্কতা

বাংলালাইভ২৪.কমে প্রকাশিত বা প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© All rights reserved © 2019 BanglaLive24
Theme Developed BY ThemesBazar.Com
themesbazarbanglalive1