1. banglalivedesk@gmail.com : banglalive :
  2. emonbanglatv@gmail.com : Dewan Emon : Dewan Emon
আশুলিয়ায় ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ নেতার বিরুদ্ধে জমি দখলের অভিযোগ!
বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০২০, ০৯:৪৬ পূর্বাহ্ন

আশুলিয়ায় ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ নেতার বিরুদ্ধে জমি দখলের অভিযোগ!

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট । বাংলালাইভ২৪.কম
  • আপডেট সময় রবিবার, ১১ অক্টোবর, ২০২০

আশুলিয়ার জহরছান্দা এলাকায় চাঁনমিয়া নামের এক ব্যক্তির ২৫ শতাংশ জমি জোর পূর্বক দখল করার অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় এক আওয়ামীলীগ নেতাসহ ৬জনের বিরুদ্ধে।

অভিযুক্তরা হলেন, আশুলিয়া ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম (৫০), টিটু সরকার (৩৮), আব্দুর রশিদ (৫০), ফারুক হোসেন (৩৬), শফিকুল ইসলাম (৪০) ও লিটন মাদবর (২৮) ।

ভুক্তভুগী চাঁন মিয়া বলেন, ষাট বছর পূর্বে আমার আর আমার মায়ের ক্রয়কৃত ২৫.২০ শতাংশ জমি স্থানীয় চিহ্নিত ভ’মিদস্য রেজাউল গং দীর্ঘদিন যাবত জোর পূর্বক দখলের পাঁয়তারা করে আসছে। এবিষয়ে আদালতে একটি মামলাও করেছে ভ’ক্তভুগি চাঁনমিয়া।

করোনা মহামারিতে আদালতের কার্যক্রম স্থগিত থাকার সুযোগে গত মঙ্গলবার (২৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ভাড়াটে একদল সন্ত্রাসী নিয়ে পূনরায় ওই জমি দখলের চেষ্টা করে রেজাউল গং বাহিনী। এসময় কেটে ফেলা হয় ওই জমিতে থাকা কয়েক ধরণের গাঁছ। ভয়ভীতি দেখানো হয় চাঁনমিয়ার পরিবারকে। পওে জাতিয় জরুরি সেবা নাম্বার (৯৯৯) এ কল দিলে ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করেন।

এসময় আওয়ামীলীগ নেতা রেজাউল করিমের ভাড়াটে বাহিনীর হাতে থাকা দেশীয় অস্ত্রের ছবি তুলে রাখেন চাঁনমিয়ার ছেলে শিপলু আহমেদ। পরে সেই ছবি ফেসবুকে পোস্ট করলে আজ রবিবার (১১ অক্টোবর) দুপুরে বাড়ির উপরে গিয়ে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে আসে রেজাউল বাহিনীর সদস্যরা। এরপর থেকে ভয়ে বাড়ির বাহিরে বের হচ্ছেন না ওই পরিবারের কেই।
পরে সন্ধ্যায় একটি প্রাইভেট কার ভাড়া করে আশুলিয়া থানায় গিয়ে একটি অভিযোগ দায়ের করেন ভুক্তভুগি চাঁনমিয়ার ছেলে শিপলু আহমেদ।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে আওয়ামীলীগ নেতা রেজাউল করিম বলেন, জমি দখলের বিষয়টা সম্পূর্ণ মিথ্যা। চাঁন মিয়ার বাবা নিক্কন হাউজিংয়ের কাছে তার সম্পূর্ণ জমি বিক্রি করে দিয়েছে, সেই জমির প্লট দখল করে রেখেছে চাঁনমিয়া । ওই প্লট পরিষ্কার করতে যাই আমরা। জোর পূর্বক কোন জমি দখল করতে আমি যাইনি। উল্টো চাঁনমিয়া ওই জমি দখলের উদ্দেশ্যে আমার নামে মিথ্যা মামলা করেছে আদালতে।

দেশীয় অস্ত্রের ও প্রাণনাশের হুমকির বিষয়ে জানতে চাইলে রেজাউল বলেন, আমি কাউকে হুমকি দেইনি।সেদিন আমরা কাস্তে আর কোদাঁল নিয়ে জমি পরিষ্কার করতে গিয়েছি, অন্য কোন অস্ত্র নিয়ে যাইনি।

এবিষয়ে আশুলিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ কামরুজ্জামান খান বলেন, এমন একটি অভিযোগ আমাদের কাছে এসেছে। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এ জাতীয় আরো খবর

সতর্কতা

বাংলালাইভ২৪.কমে প্রকাশিত বা প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© All rights reserved © 2019 BanglaLive24
Theme Developed BY ThemesBazar.Com
themesbazarbanglalive1