ঢাকাবৃহস্পতিবার, ২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

অভিযোগের সংখ্যা বাড়ছে, আবারো চাকুরী দেওয়ার নামে অর্থ গ্রহণের অভিযোগ

Link Copied!

রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দিতে সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দপ্তরী কাম প্রহরী পদে অর্থ গ্রহনের অভিযোগের রেশ কাটতে না কাটতে আবারও সমাজ কল্যাণ বিভাগে চাকুরী দেওয়ার কথা বলে অর্থ গ্রহণের অভিযোগ উঠেছে। চাকুরী না হওয়ায় টাকা ফেরত দিতে গড়িমসি করছে। বিভিন্ন সমাজপতির নিকট টাকা ফেরতের জন্য ঘুরলেও দিনের পর দিন ঘোরাচ্ছে।

উপজেলার বহরপুর ইউনিয়নের চরবহরপুর গ্রামের আতিয়ার মন্ডলের ছেলে কামরুল মন্ডল অভিযোগ করে বলেন, চর বহরপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দপ্তরী কাম প্রহরী পদে নিয়োগ দেওয়ার আশ্বাসে আমার নিকট থেকে বহরপুর বাজার বণিক সমিতির সাবেক সভাপতি আবুল কালাম আজাদ এক লক্ষ টাকা ও চর বহরপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রাক্তন সভাপতি মহসীন শেখ ৫০ হাজার টাকা গ্রহণ করেন। দপ্তরী কাম প্রহরী পদে নিয়োগের নামে অর্থ গ্রহণ করলেও আজ পর্যন্ত চাকুরী দিতে পারেনি। চাকুরী দিতে না পারায় আমি তাদেরকে বারংবার টাকা ফেরতের জন্য বললেও আজ কাল করে ঘুরাচ্ছেন। বিষয়টি নিয়ে এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিকট অভিযোগ করেও কোন ফল পায়নি।

শনিবার উপজেলা রিপোর্টার্স ক্লাবে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন, চরবহরপুর গ্রামের আঃ মজিদ শেখ। তিনি লিখিত অভিযোগে বলেন, বহরপুর গ্রামের আবু বক্কর সেখের ছেলে আবুল কালাম আজাদ আমার ছেলেকে সমাজ কল্যাণ বিভাগে চাকুরী দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে পূবালী ব্যাংক, বনানী শাখার হিসাব নং ৩৩১১৯০১০১৯৪৪৬ একাউন্টে ২০১৮ সালের ৩০ আগষ্ট ২লক্ষ টাকা গ্রহণ ছেলের চাকুরী না হওয়ায় তাকে অনেক অনুরোধ ও চাপ সৃষ্টি করলে এক লক্ষ টাকা ফেরত প্রদান করলেও বাঁকী একলক্ষ টাকা দিতে অস্বীকার করছে। টাকার জন্য তাকে তাগাদা দিলে বিভিন্ন ধরণের হুমকি প্রদান করে আসছে। সে হুমকি দিচ্ছে আমি টাকা না দিলে এমন কোন শক্তি নাই আমার কাছ থেকে টাকা আদায় করতে পারে। তার হুমকিতে আমিসহ আমার পরিবার আতঙ্কিত।

এব্যাপারে বহরপুর বাজার বণিক সমিতির সাবেক সভাপতি আবুল কালাম আজাদ এর সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাদের সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি।